রাউটার (Router) ও ল্যান (LAN) বলতে কী বোঝায়?

রাউটার একটি ডিভাইস যা কম্পিউটার নেটওয়ার্ক বা ইন্টারনেট কনেকশন স্থাপনে ব্যবহৃত হয়। এটি নেটওয়ার্কে অবস্থানগুলি সংযুক্ত করে ফাইল শেয়ার করা এবং প্রাথমিক অনলাইন সুবিধা দেয় এবং ইন্টারনেট এর মাধ্যমে কম্পিউটার সংযোগ প্রদান করে। একটি ল্যান (Local Area Network) হল ব্যক্তিগত বা অফিস এলাকা যার ভিতরে আপনি ইন্টারনেট না থাকেও কম্পিউটারগুলির মধ্যে সংযোগ স্থাপনে ব্যবহৃত হয় এবং অনেক সাধারণ উদ্দেশ্যের জন্য ব্যবহার করা হয়। এটি একটি নেটওয়ার্ক এর মতো সংক্ষিপ্ত অংশ হতে পারে যা একটি বিশাল নেটওয়ার্ক এর ভিতরে অবস্থান নেন।

তবে এই নেটওয়ার্ক গুলো সম্প্রতি আইপি আধারিত হচ্ছে, যা আপনার ল্যান এর ভিতরে প্রতিটি কম্পিউটারকে আইপি এড্রেস দেয়। একটি ব্রডকাস্ট এড্রেস প্রদর্শন করে মাল্টিকাস্ট শেষ হলে প্রতিটি কম্পিউটার কেমন ডাটা পেতে চায় তা জানানোর জন্য ব্যবহৃত হয়।সুতরাং, রাউটার এবং ল্যান দুইটি প্রধান উপকরণ যা একটি ফাস্ট এবং সেমপ্লিক্স নেটওয়ার্কের উন্নয়নে একটি প্রধান ভূমিকা পালন করে একসাথে সংযুক্ত হয়ে থাকে যা একটি স্বচ্ছ নেটওয়ার্ক সৃষ্টি করে।”

রাউটার (Router)

রাউটার হল একটি ডিভাইস যা নেটওয়ার্কের আবদ্ধতা ব্যবস্থাপনা করে। আপনার ইন্টারনেট সংযোগ থাকলে সেটি রাউটার দ্বারা বিভিন্ন ডিভাইসে বিতরণ করা হয়। যেমন আপনি একটি ফিল্টার উপস্থাপন করতে পারেন এবং আপনি একটি সংযোগ করতে পারেন নেটওয়ার্কের সমস্ত ডিভাইসে থেকে বা ওয়াইফাই স্মার্টফোন বা ল্যাপটপ আদি ব্যবহার করে। রাউটারের প্রধান উদ্দেশ্য হল একটি নেটওয়ার্কের রুটিং প্রতিষ্ঠাপ করা।

রাউটার একটি গেটওয়ে হয় যা নেটওয়ার্কে যোগাযোগ স্থাপন করে…

রাউটার (Router) কি?

রাউটার হলো একটি ডিভাইস যা কম্পিউটার নেটওয়ার্কের মধ্যে প্রবেশ করে তথা নেটওয়ার্ক উপকরণ এবং ইন্টারনেটের মধ্যে তথ্য পাঠায়। এর মাধ্যমে ইন্টারনেট সংযোগ করা হয় যাতে বিভিন্ন কম্পিউটার এবং অন্যান্য উপকরণ একসাথে একটি নেটওয়ার্কের মধ্যে সংযুক্ত হতে পারে। এটি কম্পিউটারের নেটওয়ার্ক নোডের মধ্যে মেসেজ পাঠানোর উপকারিতা দেয় এবং পাঠানো মেসেজগুলি গন্তব্য করে যে কোন নেটওয়ার্কে পাঠানো হতে পারে। একজন ব্যবহারকারী যখন ইন্টারনেট ব্যবহার করছেন তখন রাউটারটি সাধারণত DHCP (ডাইনামিক হোস্ট কনফিগারেশন প্রটোকল) ব্যবহার করে ওয়ান ভিপিএন (WAN) ইন্টারনেট কানেক্ট করতে পারেন।

রাউটারগুলি একটি স্থানীয় নেটওয়ার্ক থেকে অন্য একটি স্থানীয় নেটওয়ার্কে ডেটা পাঠাতে পারে এবং সমস্ত ডেটা নেটওয়ার্ক ব্রডকাস্ট করা হয়। রাউটারগুলি একটি নেটওয়ার্কের মধ্যে অন্য নেটওয়ার্কের চেয়ে প্রবেশ করে এবং একটি সাদা সফটওয়্যার অথবা হার্ডওয়্যার জেনে সাধারণত ইন্টারনেট কানেক্ট করা হয়। “

রাউটার (Router) কেন প্রয়োজন?

রাউটার (Router) একটি গুরুত্বপূর্ণ ডিভাইস যা ইন্টারনেট কানেকশান সাজানোর জন্য ব্যবহৃত হয়। এটি নেটওয়ার্ককে পার্থক্যমূলক আইপি (IP) ঠিকানা দেওয়ার জন্য ব্যবহৃত হয় যাতে কোন ব্যক্তি ও ডিভাইস নিরাপদ ভাবে ইন্টারনেট ব্যবহার করতে পারে। এছাড়াও, রাউটার যদি একটি ওয়াইফাই রাউটার হয় তবে এটি হোম নেটওয়ার্কে মোবাইল, ল্যাপটপ, ট্যাবলেট সহ অন্যান্য উপকরণে ওয়াইফাই সংযোগ সাজানোর জন্য ব্যবহৃত হয়। রাউটার একটি নেটওয়ার্কের ভিন্ন ভিন্ন উপকরণকে সংযোগ করার জন্য ব্যবহৃত হয় যাতে নেটওয়ার্কের সমস্ত ডিভাইস ইন্টারনেট এক্সেস করতে পারে।

সুতরাং, রাউটার সেটিং এবং এক্সেস প্রদানের মাধ্যমে নেটওয়ার্ক পরিচালনার সুবিধা উপভোগ করা যায়।

রাউটার (Router) কিভাবে কাজ করে?

রাউটার হল একটি নেটওয়ার্ক ডিভাইস যা তথ্য পাঠানোর জন্য ব্যবহার করা হয়। এটি একটি প্রোটোকল হতে পারে, সরঞ্জাম বা সফটওয়্যার হতে পারে। আপনি মনে করতে পারেন যে রাউটার বাসা ও অফিসের একটি লিংকিং ডিভাইস, যা আপনার ডিভাইসগুলি সংযুক্ত করে এবং তারপরে এই ডিভাইসগুলি ইন্টারনেট বা ওয়ান লাইন সংযোগ ব্যবহার করে সংযুক্ত করে দেয়। রাউটার নেটওয়ার্ক ট্রাফিক প্রবাহিত করে এবং একটি ডিভাইস থেকে আরেকটি ডিভাইসকে সংযোগ করতে পারে।

এটি প্যাকেট হেডার এর তথ্য পড়ে এবং যদি আপনি একটি রাউটারের কাছে কোনও ট্রাফিক প্যাকেট পাঠান তবে এটি রাউটার একটি চেক করে তারপর দুটি রুটিং টেবিল এর তথ্য ব্যবহার করে সঠিক ফাইনাল গেটওয়ে প্রেরণ করে যা সংযোগগুলি স্থাপন করতে সহায়তা করে। সাধারণত রাউটার আরও বেশি লেয়ার 3 রেখার উপর ভিত্তি করে কাজ করে যা ইন্টারনেট সংযোগগুলি স্থাপন এবং মুখ্যতঃ IP এড্রেস ব্যবহার করে। সুতরাং, রাউটার হল একটি দূরবর্তী নেটওয়ার্ক সংযোগকারী যা আপনার নেটওয়ার্ক সংযোগ প্রবাহ প্রবাহ করে। এটি অনেক বেশি ডিভাইস টাইপ সংযোগ করতে পারে এবং আপনার নেটওয়ার্ক ট্রাফিক প্রবাহ করতে সমর্থ।

আমাদের নেটওয়ার্কিং জীবনে রাউটার একটি প্রায় অপরিহার্য উপকরণ হয়ে উঠছে যা আমরা একটি প্রাধান্যমূলক উপকরণ হিসেবে ব্যবহার করতে পারি।

ল্যান (LAN)

ল্যান (LAN) হল একটি স্থানীয় নেটওয়ার্ক, যেখানে একাধিক কম্পিউটার একসঙ্গে সংযুক্ত থাকে। এই নেটওয়ার্কে সংযুক্ত কম্পিউটারগুলি স্থানীয়ভাবে সমন্বয়কারী হয় এবং দুর্গটনশীল। উদাহরণস্বরূপ, একটি বাসা যদি ল্যানের মাধ্যমে ইন্টারনেটে সংযুক্ত হয়, তবে সমস্ত বর্তমান অনলাইন ডিভাইস একটি নেটওয়ার্কে সংযোগ পাবে এবং সমস্ত লগইন প্রতিষ্ঠান বা ব্যবসাইয়ের একটি কম্পিউটারে সংশ্লিষ্ট হবে। এর কারণে, সমস্ত উপসর্গিত কম্পিউটারগুলি একটি নেটওয়ার্কে সংযুক্ত হয় এবং সেগুলি থেকে একটি বিশাল ডেটা সেন্টারে সংগ্রহ করা হয়।

ল্যান ব্যবহার করে ডেটা সঙ্গে সম্পর্কিত কম্পিউটারগুলি দ্রুত অ্যাক্সেস করা যায়, এটি প্রায় কোনও ল্যাটেন্সি নেই এবং সাধারণত একটি নির্দিষ্ট সিরিজ অফ একই সেটিংস ব্যবহার করে।

ল্যান (LAN) কি?

ল্যান অবশ্যই সহজবোধ্য নয়। কিন্তু এটি একটি জার্মান শব্দ হিসেবে ব্যবহৃত হয় এবং এর মানে হল লোকদের জন্য একটি নেটওয়ার্ক যা সাধারণত একটি স্থানীয় এলাকার একাধিক কম্পিউটার যুক্ত করে। মূলত এই নেটওয়ার্কগুলি সংগঠিত এবং মান নিশ্চিত করার জন্য গ্রুপ পদ্ধতি ব্যবহৃত হয়। ল্যান নেটওয়ার্কের একটি গুরুত্বপূর্ণ বৈশিষ্ট্য হল এর নেটওয়ার্ক যথাযথ উপকরণ ব্যবহার করে।

আর এর সর্বশেষ বৈশিষ্ট্য হল এটি সংক্ষিপ্ত ব্যবহার এবং স্ট্যান্ডার্ড কারণে একটি নিরাপদ এবং সুসংগঠিত নেটওয়ার্ক এবং এটি একটি ব্যবহারকারীদের সঙ্গে ফাইল এবং পথ ভাগ করতে সাহায্য করে।

ল্যান (LAN) কেন প্রয়োজন?

ল্যান (LAN) নেটওয়ার্ক হলো একটি নেটওয়ার্ক যা সীমিত একটি স্থানে বিভিন্ন ডিভাইসগুলি সংযুক্ত করে। ল্যান নেটওয়ার্ক ব্যবহার করে আপনি কম্পিউটার, প্রিন্টার, স্ক্যানার, সার্ভার এবং অন্যান্য নেটওয়ার্ক সংযোজনের সুযোগ পান। আপনি ল্যান ব্যবহার করে টেলিকমিউনিকেশন কার্যক্রম এবং ফাইল শেয়ারিং করতে পারেন। এছাড়াও ল্যানের সাহায্যে আপনি একটি কম্পিউটারে কাজ করছেন তা অন্য কম্পিউটারে প্রদর্শন করতে পারেন।

একটি ল্যান নেটওয়ার্ক কম্পিউটারের দ্বারা শাখার মধ্যে তথ্য একটি সহজ ও দ্রুত উপাদানে পরিবতন করে। লজিক্যালি আবদ্ধ ও পুনরায় ব্যবহারযোগ্য এই নেটওয়ার্কের মাধ্যমে সকলেরই আলাদা-আলাদা পরিস্থিতি অনুসরণ করে ফ্যামিলার হয়ে জড়িত থাকা সহজ হয়ে উঠে থাকে। সুতরাং ল্যান নেটওয়ার্ক দ্বারা কাজের দক্ষতা এবং প্রফেশনালিজ্যান বাড়ানো সম্ভব হয়।

ল্যান (LAN) কিভাবে কাজ করে?

ল্যান বলতে আমরা একটি নেটওয়ার্ক বোঝায় যা মোটামুটি সীমানাভুক্ত অঞ্চলের মধ্যে স্থাপিত হয়। অর্থাৎ ল্যান হল একটি নেটওয়ার্ক যা একটি সমস্ত স্থান থেকে সংযুক্ত হয় এবং একটি নেটওয়ার্কিং ডিভাইস দ্বারা নির্ধারিত সীমা অঞ্চলের মধ্যে থাকে। ল্যান কমপক্ষে দুইটি উপকরণ থাকে – সার্ভার এবং ক্লায়েন্ট। ল্যানে, যখন কোনো ক্লায়েন্ট কোনো ডেটা ডাউনলোড করবেন তখন ডেটা প্রথমে ক্লায়েন্ট হতে সেভ হবে সার্ভারে এবং একটি সংযোগ তৈরি হবে ডেটা পাঠানোর জন্য।

এরপর সার্ভার এবং ক্লায়েন্ট দুইটি উপকরণ সংযুক্ত হই করে ডেটা পাঠতে পারবেন। এভাবে ল্যান কাজ করে। এটি দুর্ভাগ্যজনক না যে, সুযোগ দিয়ে একটি নেটওয়ার্ক থেকে ডেটা চুরি করা যেতে পারে। তাই একটি ভাল নেটওয়ার্ক সিকিউরিটি এবং ডাটা গোপনীয়তার জন্য উপযোগী হতে পারে।

রাউটার (Router) ও ল্যান (LAN) এর পার্থক্য

রাউটার ও ল্যান দুটি নেটওয়ার্কিং পার্থক্য। একটি রাউটার হল এমন একটি ডিভাইস যা ইন্টারনেট সংযোগ এবং লোকাল নেটওয়ার্ক সংযোগ পরিচালনা করতে সক্ষম। অন্যদিকে, একটি ল্যান (Local Area Network) একটি নেটওয়ার্ক যা একটি কম্পিউটার সিস্টেমের ভিতরে থাকে। কম্পিউটার, প্রিন্টার, স্ক্যানার এবং অন্যান্য ডিভাইসগুলি সমন্বিত থাকে এবং একটি সর্বমোট সিস্টেম হিসেবে কাজ করে।

আবার রাউটার একটি স্বতন্ত্র ডিভাইস যা একাধিক ল্যান সংযোগ করতে সক্ষম এবং জমা হওয়া ডেটা যাতে সঠিকভাবে বিভাজিত হয়, সেটি নির্ধারণ করে ব্যবহার করা হয়। রাউটার ও ল্যান একই নেটওয়ার্কের একটি অংশ হিসেবে কাজ করার সাথে সাথে এদের ফাংশনালিটি একে অপরের থেকে ভিন্ন হওয়া অধিক উপকারী হয়।

রাউটার (Router) আর ল্যান (LAN) এর পার্থক্য কি?

রাউটার এবং ল্যান দুটি পুরোপুরি ভিন্ন জিনিস। রাউটার প্রথমত একটি নেটওয়ার্ক ডিভাইস যা একটি ইন্টারনেট সংযোগ প্রবাহকে ওয়ান নেটওয়ার্কে রুট করে। আমরা সমস্ত নেটওয়ার্ক সম্পর্কিত কাজগুলি রাউটারে করি। আর ল্যান হল লোকাল এলান নেটওয়ার্ক, যা আমাদের বাসা বা অফিসের মধ্যেই থাকে।

নেটওয়ার্কের মধ্যে সংযোগ প্রদান করে সমস্ত ডিভাইস যেমন কম্পিউটার, প্রিন্টার ইত্যাদি। ল্যান অ্যাড্রেস এবং রাউটার এড্রেস পরিচালনা করে আপনি নেটওয়ার্কে একটি কাজ করতে পারেন। রাউটার ও ল্যান উভয়ই নেটওয়ার্ক কনফিগারেশনে উপস্থিত এবং প্রয়োজন হলে একটি ডিভাইসে পরিবর্তন করা যেতে পারে।

রাউটার (Router) আর ল্যান (LAN) কেন পার্থক্য রয়েছে?

প্রায়শই আমরা ইন্টারনেট ব্যবহার করি কিন্তু কখনও জানিনা যে এটি কিভাবে কাজ করে। আসলে ইন্টারনেটে কম্পিউটারগুলি মিলে একটি নেটওয়ার্ক তৈরি করে। এই নেটওয়ার্কের মধ্যে বিভিন্ন ধরণের ডিভাইস যুক্ত হয়, যেমন কম্পিউটার, প্রিন্টার, স্মার্টফোন, ট্যাবলেট ইত্যাদি। এই নেটওয়ার্ক তৈরি করতে একটি প্রয়োজনীয় উপকরণ হল রাউটার (Router)।

একটি রাউটার ইন্টারনেট সংযোগ পাবার ব্যবস্থা করে এবং কম্পিউটারগুলি একটি লোকাল নেটওয়ার্ক (LAN) তে সংযোজিত হয়। রাউটারটি নেটওয়ার্কের বাইরের ইন্টারনেট কানেকশানকে একটি রাস্তা হিসাবে ব্যবহার করে এবং ইন্টারনেট কনেকশান এবং লোকাল নেটওয়ার্কে ডেটা দুটির মধ্যে উপলব্ধি সেন্ড এবং রিসিভ করে। অবশ্যই, রাউটারটি নেটওয়ার্কের মধ্যে রাস্তা হিসাবে কাজ করতে পারে, কিন্তু লোকাল নেটওয়ার্কে নেটওয়ার্ক সেটিংস, কনফিগারেশন এবং সিকিউরিটি ম্যানেজমেন্ট এডমিনিস্ট্রেট করতে যুক্ত সংবেদনশীল একটি নেটওয়ার্ক ডিভাইস হিসাবে কাজ করে। দ্রুত ইন্টারনেট কনেকশানের জন্য প্রয়োজনীয় সকল সেটিংস সহ একটি রাউটার প্রয়োজন।

এর নিম্নলিখিত বৈশিষ্ট্যগুলি রাউটারটি লোকাল নেটওয়ার্কের পাশে একটি লক্ষ্য হিসাবে কাজ করতে সাহায্য করে: – গেটওয়ে বৃদ্ধি। – কনফিগারেশন ও সিকিউরিটি উন্নয়ন। – প্রদত্ত সংযোগের ট্রাফিক, সিস্টেম ব্যবস্থাপণ এবং পরিচালনা। রাউটার একটি নেটওয়ার্কের জন্য তৈরি এবং একটি নেটওয়ার্কের বহিঃসংযোগ করতে হয়।

সদ্য বেশ কয়েকটি উন্নয়নশীল রাউটার যার মাধ্যমে আপনি একই নেটওয়ার্কের বেশ কিছু কম্পিউটার ও অন্যান্য ডিভাইস সংযুক্ত করতে পারেন। লোকাল নেটওয়ার্ক (LAN) এর জন্য রাউটার এবং একজন সেটি সেট আপ করতে পারেন। কারণ রাউটার লোকাল নেটওয়ার্কের সিস্টেম ব্যবস্থাপনা ও পরিচালনা করতে উপযোগী হয়। সহজে ভাবতে চাইলে, রাউটার নেটওয়ার্কের মধ্যে একটি রাস্তা হিসাবে কাজ করে এবং মনে করতে পারবেন ল্যান বা লোকাল নেটওয়ার্ক মেলে স্থায়ী একটি নেটওয়ার্ক তৈরি করে।

ল্যান বা লোকাল নেটওয়ার্ক একটি নেটওয়ার্ক স্থাপন করতে একটি স্ট্রাং নেটওয়ার্ক প্রাথমিক করে তারপর এটি রাউটারেও সংযোগ দেয়া লাগে।

কেন রাউটার (Router) এবং ল্যান (LAN) একসাথে ব্যবহার করা হয়?

ল্যান মানে হল লোকাল এরিয়া নেটওয়ার্ক এবং রাউটার হল দূরবর্তী নেটওয়ার্ক এবং এই দুটো জিনিসই নেটওয়ার্ক নির্মাণ করার জন্য ব্যবহৃত হয়। আমাদের বাড়ি থেকে ইন্টারনেট ব্যবহার করতে হলে আমাদের রাউটারের মাধ্যমে ইন্টারনেটে যোগাযোগ করতে হয়। আবার ল্যান এর মাধ্যমে চারিদিকের একটি নেটওয়ার্ক বানানো যায় যাতে একটি কম্পিউটার থেকে দুজনের মধ্যে ফাইল ট্রান্সফার করা যায়। তাই এই দুটো নেটওয়ার্ক একসাথে ব্যবহার করা হয় এবং এর ফলে ইন্টারনেট ব্যবহার এবং নেটওয়ার্কিং সহজ হয়ে যায়।

এছাড়া এর মাধ্যমে আমরা ডাটা ট্রান্সফার করতে পারি, বিভিন্ন নেটওয়ার্ক প্রটোকল ব্যবহার করতে পারি এবং একটি সুরক্ষিত নেটওয়ার্ক তৈরি করতে পারি। তাই এই দুটো নেটওয়ার্ক একসাথে ব্যবহার করা খুবই জরুরি।

Leave a Comment